ক্রেতা হিসাবে বাছাই করার কার্যকরী সুযোগই ভারতীয় টিভি দর্শকদের কাছে আসল, বলছে BIF-CUTS সার্ভে

ব্রডব্যান্ড ইন্ডিয়া ফোরাম (BIF) কনজিউমার ইউনিটি অ্যান্ড ট্রাস্ট সোসাইটি (CUTS International) একটি সার্ভের রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। টিভি চ্যানেল বাছাই এবং সার্বিক সন্তুষ্টি সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের মনোভাব পরিমাপ করার জন্য দেশজুড়ে ১০,০০০-এর বেশি টিভি ব্যবহারকারীর মধ্যে এই সার্ভে করা হয়েছিল। ব্যবহারকারীদের মনোভাব মাথায় রেখে ভারতে এই প্রথম এত বড় স্বাধীন নিরপেক্ষ সমীক্ষা করা হল। এর নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১০,০০০-এর বেশি টিভি ব্যবহারকারীর কাছ থেকে, যাঁরা নানা বয়সের, নানা পরিমাণ আয়ের, নানারকম পরিবেশের এবং নানা লিঙ্গের। এই সমীক্ষা থেকে এমন কিছু কৌতূহলোদ্দীপক জিনিস উঠে এসেছে, যা আজকের দিনে যখন ডিজিটাল/ওটিটি মিডিয়া এবং অ্যাপ অস্বাভাবিক গতিতে বেড়ে চলেছে, তখনো টিভির গুরুত্ব প্রাসঙ্গিকতাকেই আরও জোরদার করে।

সমীক্ষার রিপোর্টে পাওয়া প্রধান বিষয়সমূহ:

.            টিভি হল ভিডিও কনটেন্ট উপভোগ করার জন্য সবচেয়ে বেশি মানুষের পছন্দের জিনিস: লক্ষ করার মত, যে সার্ভের আওতায় আসা বিপুল সংখ্যক ব্যবহারকারী (৭০%) টেলিভিশন এমন একটি মাধ্যম যা খরচের উপযুক্ত মূল্য দেয়। মাত্র ২৭% ডিজিটাল/ওটিটি প্ল্যাটফর্ম সম্পর্কে কথা মনে করেন আর মাত্র % টিভি অ্যাপগুলো সম্পর্কে কথা মনে করেন।

 .           ব্যবহারকারীরা বোকে পছন্দ করেন: আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার হল, সার্ভের আওতায় আসা ৫৪% ব্যবহারকারী বোকে/প্যাকেজের মাধ্যমে টিভি চ্যানেল কেনেন। ৩৫% বোকে আর একক চ্যানেলের মিশ্রণ ব্যবহার করেন। অর্থাৎ সার্ভের আওতায় আসা ব্যবহারকারীদের মোট ৮৯% বোকে পছন্দ করেন। সুতরাং বলা যায় দর্শকদের পছন্দ হিসাবে বোকে অন্য সব বিকল্পের চেয়ে অনেক এগিয়ে।

.           যদিও ব্যবহারকারীরা বোকেই পছন্দ করেন, তাঁরা নিজেদের সাবস্ক্রিপশন থেকে আরও বেশি কিছু পেতে চান: ৪০% ব্যবহারকারী মনে করেন তাঁদের সাবস্ক্রিপশন গোটা পরিবারের টিভি দেখার প্রয়োজন মেটায়। অনেক ব্যবহারকারী মনে করেন তাঁদের সন্তুষ্টির মাত্রা বাড়ানোর অবকাশ আছে, কারণ তাঁরা এমন অন্যান্য কিছু নতুন চ্যানেল দেখতে চান, যেগুলো ভাল লাগবে বলে তাঁদের ধারণা। ব্যবহারকারীদেরকার্যকরী বাছাই’-এর সুযোগ ব্যবহার করার প্রয়োজন আছে।

.           দাম: বহু ব্যবহারকারীর জন্য টিভি প্যাকেজ সাবস্ক্রিপশন বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে দামই হল সবচেয়ে জরুরি বিষয়। বেশিরভাগ ব্যবহারকারী ডিস্ট্রিবিউটরদের দেওয়া বেসিক প্যাকেজই সাবস্ক্রাইব করেন, যাতে ১০০-২০০ চ্যানেল থাকে। ব্যবহারকারীরা তাঁদের সাবস্ক্রিপশনের জন্য গড়ে মাসিক ২০০ থেকে ৪০০ টাকা দিয়ে থাকেন।

 .           কীভাবে চ্যানেল বাছাই করতে (বা বাদ দিতে) হয় সে সম্পর্কে সচেতনতার অভাব এবং লাস্ট-মাইল টিভি ডিস্ট্রিবিউটরদের উপর নির্ভরতা: বহু ব্যবহারকারী (৩১%) দাবি করেছেন যে তাঁরা জানেন না সাবস্ক্রিপশন প্যাকেজে টিভি চ্যানেল যোগ করা/প্যাকেজ থেকে চ্যানেল বাদ দেওয়া যায়। ৫১% নিজে নিজে চ্যানেল যোগ করতে/বাদ দিতে চান না আর যাঁরা কাজ নিজের করে থাকেন, তাঁদের মাত্র ৪৩% চ্যানেল যোগ করা/বাদ দেওয়ার প্রক্রিয়াটিকে সুবিধাজনক বলে মনে করেন। বেশিরভাগ ব্যবহারকারী (৬০%) চ্যানেল যোগ করা বা বাদ দেওয়ার ম্যানুয়াল প্রক্রিয়ার উপরেই নির্ভর করেন এবং ডিস্ট্রিবিউটরদের সরাসরি হস্তক্ষেপ চান।

 .           TRAI-এর চ্যানেল সিলেক্টর অ্যাপ সম্পর্কে সচেতনতার অভাব: প্রায় ৭৫% ব্যবহারকারী ২০২০ সালের জুন মাসে ব্যবহারকারীদের বাছাই করা সুযোগ বাড়ানোর জন্য TRAI যে channel selector app লঞ্চ করেছিল তার সম্পর্কে জানেন না। এই আবিষ্কার থেকে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে ব্যবহারকারীদের ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য প্রয়াস করার প্রয়োজন টের পাওয়া যায়।

 .           ব্যবহারকারীরা লাস্ট-মাইলে উন্নততর কোয়ালিটি অফ সার্ভিস (QoS) চান: TRAI ২০১৭ সালে QoS রেগুলেশনস চালু করে। সেই নিয়মাবলী অনুযায়ী আইটেমাইজড বিলিং, দ্রুত সুবিধাজনক অভিযোগ নিষ্পত্তি এবং কাস্টমার প্রেমিসেজ ইকুইপমেন্ট সংক্রান্ত সহায়তা বাধ্যতামূলক হয়। কিন্তু ব্যবহারকারীরা মনে করেন এই ক্ষেত্রগুলোতে উন্নতির অবকাশ আছে। প্রতি জনে জন ব্যবহারকারীর মতে অভিযোগ নিষ্পত্তি, সেট টপ বক্স (STB) সংক্রান্ত সহায়তা, যেসব চ্যানেল দেখতে চান সেগুলো বেছে নেওয়ার স্বাধীনতার অবনতি হয়েছে এবং বিজ্ঞাপনের সংখ্যা বেড়েছে। বস্তুত প্রতি ১০ জন ব্যবহারকারীর মধ্যে জন কখনো আইটেমাইজড বিল পাননি। এগুলো বর্তমান নিয়মে বাধ্যতামূলক (FAQ দেখুন) এগুলো মানা হচ্ছে না মানে লাস্ট-মাইল ডিস্ট্রিবিউশনে ঘাটতি রয়েছে।

 

প্রদীপ এস মেহতা, সেক্রেটারি জেনারেল, CUTS International বললেনএই সমীক্ষায় সারা দেশের ১০,০০০-এর বেশি সাবজেক্টকে যুক্ত করা হয়েছে, যাতে টিভি ব্যবহারকারীরা চ্যানেল বেছে নেওয়ার যে সুযোগ উপভোগ করেন এবং যতটা সুযোগ এই মুহূর্তে হাতে রয়েছে তা নিয়ে তাঁদের সন্তুষ্টির মাত্রা সম্পর্কে মনোভাব ধরা পড়ে। সমীক্ষার প্রধান আবিষ্কারগুলো থেকে বোঝা যাচ্ছে ব্যবহারকারীর বাছাই করার কার্যকরী ক্ষমতা এবং চ্যানেল বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে খামতি আছে। ব্যবহারকারীদের অধিকার সম্পর্কে এবং চ্যানেল বাছাই করার পদ্ধতি সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর প্রয়াস দরকার। তবে নিয়ামক সংস্থার দিক থেকে ফের কোনো হস্তক্ষেপ করার আগে মূল্য বনাম লাভের বিস্তারিত বিশ্লেষণ করা উচিত।

এই রিপোর্টের সিদ্ধান্ত হল ভারতীয় ব্যবহারকারীরা তাঁদের টিভি সাবস্ক্রিপশন এবং বান্ডিলগুলো থেকে অনেককিছু আশা করেন এবং যদি নিয়ামক সংস্থার পরবর্তী সংস্কারের ঢেউ নির্দিষ্টভাবে ব্যবহারকারীর বাছাই করার কার্যকারী সুযোগ তৈরি করার উপর জোর দিতে পারে, তাহলে ব্যবহারকারীর স্বাচ্ছন্দ্য বাড়ানোর অবকাশ আছে। ব্যবহারকারীর পছন্দ আর চ্যানেল সাবস্ক্রিপশনের মধ্যে গরমিল একেবারে কমিয়ে ফেলার যায় যদি () ব্যবহারকারীদের সচেতনতা বাড়ানোর আরও অনেক প্রয়াস হয় (যেমন আঞ্চলিক কনজিউমার সেলগুলোর মাধ্যমে ক্ষমতা তৈরি করা) এবং () বোকে তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারে ব্যবহারকারীদের আরও বেশি ক্ষমতা থাকে।

ব্যবহারকারীর পছন্দমত সাবস্ক্রিপশন হওয়া নিশ্চিত করতেনেটওয়ার্ক ক্যাপাসিটি ফি(NCF – FAQ দেখুন) বাবদ চার্জ পুনর্বিবেচনা করা যেতে পারে। বিকল্প হিসাবে NCF বাবদ ফ্ল্যাট চার্জের বদলে প্রতি চ্যানেল বাবদ নেটওয়ার্ক অ্যাক্সেস ফি (NAF) চালু করার কথা ভাবা যেতে পারে। এই পদ্ধতিতে ব্যবহারকারীদের তাঁদের ব্যক্তিগত পছন্দ অনুসারে চ্যানেল বোকে দিয়ে সাহায্য করলে ডিস্ট্রিবিউটররা লাভবান হবেন। তাছাড়া নিয়ামক সংস্থা ব্যবহারকারীদের বিশ্বস্ত সংগঠনগুলোকে সচেতনতা গড়ে তোলা ক্ষমতা তৈরি করার ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে এবং কোয়ালিটি অফ সার্ভিস পালন, চ্যানেল বেছে নেওয়ার সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে কিনা, কনটেন্টের গুণমান এবং দেখার অভিজ্ঞতা পরিষেবার গুণমান সম্পর্কে পাহারাদারের ভূমিকা পালন করতে পারে।

 টি ভি রামচন্দ্রন, প্রেসিডেন্ট, ব্রডব্যান্ড ইন্ডিয়া ফোরাম, বললেনএত বিরাট এবং বিচিত্র স্যাম্পল সাইজ বিস্তৃতি নিয়ে করা এই স্বাধীন এবং অপারেটর নিরপেক্ষ সমীক্ষা সম্ভবত ভারতে প্রথম। তাছাড়া এর আগে ব্যবহারকারীদের দৃষ্টিভঙ্গি এবং টিভি দেখার সন্তুষ্টির মাত্রা ধরে রাখার মত কোনো প্রমাণভিত্তিক সমীক্ষাও হয়নি। সেদিক থেকে এই সমীক্ষা প্রচণ্ড গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রাসঙ্গিক। বিশেষ করে আজকের দিনে, যখন সাধারণ ধারণা হল ডিজিটাল মিডিয়া এবং কনটেন্ট লিনিয়ার টিভির জনপ্রিয়তা উত্তরাধিকারের উপর প্রভাব ফেলছে। এই রিপোর্ট পরিষেবার মান এবং ব্যবহারকারীদের সন্তুষ্টির সার্বিক উন্নতিতে সাহায্য করার জন্য নিয়ম তৈরি করা, নীতি নির্ধারণ করার সময়ে যেসব জায়গায় জোর দেওয়া উচিত সেগুলোর দিকে ইঙ্গিত করেছে।

এই সমীক্ষার প্রধান আবিষ্কারগুলো টিভি ব্যবহারকারীদের মূল্য, গুণমান এবং সার্বিক সন্তুষ্টি সম্পর্কে এক কৌতূহলোদ্দীপক ধারণা তৈরি করেছে। লাস্ট-মাইল পরিষেবাদাতা/ডিস্ট্রিবিউশন প্ল্যাটফর্ম অপারেটররা এখনো টিভি সাবস্ক্রিপশনের জন্য ব্যবহারকারীদের প্রাথমিক যোগাযোগের জায়গা। সুতরাং QoS প্রয়োজনগুলো মেটানো নিশ্চিত করা এবং স্বচ্ছতা বজায় রাখার জন্য যেসব নিয়ম করা হয়েছে সেগুলো পালন করাকে অগ্রাধিকার দেওয়া প্রয়োজন।